মেনু নির্বাচন করুন
Main Comtent Skiped

উত্তরাধিকারী সনদ

উত্তরাধিকার সার্টিফিকেট/সনদ আইনঃ
ধারা-৩৭০৷ এই ভাগের অধিনে সার্টিফেকেট মঞ্জুরে বাধা-নিষেধ৷- (১) একটি উত্তরাধিকার সার্টিফিকেট (এই ভাগে অতঃপর সার্টিফিকেট হিসাবে উল্লেখিত) ২১২ বা ২১৩ ধারার অধীনে ব্যবস্থাপনাপত্র বা প্রবেট দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হইতে হইবে এইরূপ কোনো দেনা বা জামানতে কোন অধিকার সম্পর্কে এই ভাগের অধীনে মঞ্জুর করা যাইবে নাঃ

তবে শর্ত থাকে যে, এই ধারায় বিধৃত কোন কিছুই মৃত বাংলাদেশী খৃষ্টানের বিষয় বা উহার অংশবিশেষে অধিকার দাবীকারী কোন ব্যক্তিকে সার্টিফির্কেট মঞ্জুরে নিবারণ করিবে না, এই কারণে যে, এই আইনের অধীনে ব্যবস্থাপনাপত্রের মাধ্যমে কোন দেনা বা জামানত বিষয়ে কোন অধিকার প্রতিষ্ঠা করা যাইবে৷

(২) এই ভাগের উদ্দেশ্যকল্পে ''জামানত'' অর্থ-

(ক) কোনো প্রতিজ্ঞাপত্র, ডিবেঞ্চার, স্টক বা সরকারের অন্য কোন সিকিউরিটি;

(গ) কোনো কোম্পানী বা অন্য কোন বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠানে কোনো স্টক, ডিবেঞ্চার বা শেয়ার;

(ঘ) স্থানীয় কর্তৃপক্ষের দ্বারা বা পক্ষে অর্থের জন্য ইস্যুকৃত কোন ডিবেঞ্চার, বা অন্য কোন সিকিউরিটি;

(ঙ) এই ভাগের উদ্দেশ্যে সরকার সরকারী গেজেটে প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে সিকিউরিটি বলিয়া ঘোষণা করিতে পারিবে এইরূপ অন্যকোন সিকিউরিটি৷

 

ধারা-৩৭১৷ সার্টিফিকেট মঞ্জুরে এক্তিয়ারসম্পন্ন আদালত৷-মৃত ব্যক্তি তাহার মৃত্যুর সময়ে সাধারণভাবে যে জেলা জজের এক্তিয়ারে বসবাস করেন ঐ জেলা জজ কিংবা ঐ সময় তাহার কোনো স্থায়ী নিবাস না থাকিলে যে জেলা জজের এক্তিয়ারে মৃত সম্পত্তির কোনো অংশ পাওয়া যায় ঐ জেলা জজ এই ভাগের অধীনে সার্টিফিকেট মঞ্জুর করিতে পারিবেন৷

 

ধারা-৩৭২৷ সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন৷- (১) ১৯০৮ সনের দেওয়ানী কার্যবিধিতে বর্ণিত পদ্ধতিতে দরখাস্তকারীর দ্বারা বা পক্ষে স্বাক্ষরিত এবং প্রত্যায়িত পিটিশনের মাধ্যমে উক্ত সার্টিফিকেটের দরখাস্ত করিতে হইবে৷ দরখাস্তের জন্য বাদীর দ্বারা বা পক্ষে আরজী স্বাক্ষরিত এবং প্রত্যায়িত হইবে এবং উহাতে নিম্নলিখিত বিবরণাদির উল্লেখ থাকিবে, যথাঃ-

(ক) মৃত ব্যক্তির মৃত্যুর সময়;

(খ) মৃত্যুর সময়ে মৃত ব্যক্তির সাধারণ বাসস্থান এবং উক্ত বাসস্থান যে জজের নিকট দরখাস্ত করা হয় ঐ জজের স্থানীয় এক্তিয়ারে না থাকিলে, উক্ত সীমার মধ্যে মৃত ব্যক্তির সম্পত্তি;

(গ) মৃত ব্যক্তির পরিবার বা অন্যান্য নিকট আত্মীয় এবং তাহাদের নিজ নিজ বাসস্থানসমূহ;

(ঘ) পিটিশনার যে অধিকার দাবী করেন;

(ঙ) সার্টিফিকেট মঞ্জুরে কিংবা উহা মঞ্জুর করা হইলে উহার বৈধতার ক্ষেত্রে ৩৭০ ধারা বা এই আইনে কোন বিধানাবলী বা অন্য কোন আইনের অধীনে কোন প্রতিববন্ধকতার অনুপস্থিতি; এবং

(চ) দরখাস্তকৃত সার্টিফিকেট বিষয়ে দেনা এবং সিকিউরিটিজ৷

(২) যদি পিটিশনে কোন বক্তব্য থাকে যাহা সত্যায়নকারী ব্যক্তি মিথ্যা বলিয়া জানের বা বিশ্বাস করেন কিংবা সত্য বলিয়া বিশ্বাস না করেন, তাহলে ঐ ব্যক্তি দণ্ডবিধির ১৯৮ ধারার অধীনে অপরাধ করিয়াছেন বলিয়া বিবেচিত হইবে৷

(৩) মৃত পাওনাদারের নিকট দেয় কোন দেনা বা দেনাসমূহ বিষয়ে কিংবা উহার কোন অংশ বিষয়ে উক্ত সার্টিফিকেটের জন্য দরখাস্ত করা যাইবে৷

 

ধারা-৩৭৩৷ দরখাস্ত করিবার পদ্ধতি-৷ (১) যদি জেলা জজ এই মর্মে সন্তুষ্ট হন যে, দরখাস্ত করিবার কারণ, তাহলে তিনি শুনানীর জন্য একটা দিন নির্দিষ্ট করিবেন এবং দরখাস্ত এবং শুনানীর নির্দিষ্ট ফি সম্পর্কে নোটিশ দিবেন-

(ক) বিচারকের মতে, দরখাস্ত সম্পর্কে বিশেষ নোটিশ দিতে হইবে এইরূপ কোন ব্যক্তিকে, এবং

(খ) আদালত প্রাঙ্গনের দৃষ্টি গ্রাহ্য কোন স্থানে লটকাইয়া দিবেন এবং এতদুশ্যে সুপ্রীমকোর্ট কর্তৃক প্রণীত বিধি সাপেক্ষে বিচারক যেমন উপযুক্ত মনে করেন তেমনভাবে প্রকাশিত হইবে এবং নির্দিষ্ট দিনে অথবা তত্ পরবর্তীতে যতদূর সম্ভব সুবিধাজনক সময়ে সার্টিফিকেটে বিদ্যামান অধিকার সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত পদ্ধতিতে সিদ্ধান্ত দিবেন৷

(২) যখন বিচারক উহাতে অধিকার দরখাস্তকারীর অধিকার ভুক্ত বলিয়া সিদ্ধান্ত দেন, তখন তিনি তাহাকে সার্টিফিকেট মঞ্জুরের আদেশ দান করিবেন৷

(৩) যদি বিচারক আইনগত বিষয় নিষ্পত্তি ব্যতীত যাহা সংক্ষিপ্ত কার্যধারায় নিষ্পত্তি করা তাহার বিবেচনায় সূক্ষ্ম এবং জটিল, সার্টিফিকেটে অধিকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিতে না পারেন, তাহা হইলে তিনি তাহা সত্ত্বেও দরখাস্তকারীকে সার্টিফিকেট মঞ্জুর করিতে পারিবেন যদি তাহার নিকট এই মর্মে প্রতীয়মান হয় যে, উক্ত ব্যক্তির উহাতে আপাতগ্রাহ্য স্বত্ব আছে৷

(৪) যখন একটি সার্টিফিকেটের জন্য একাধিক দরখাস্তকারী থাকেন, এবং তাহাদের একাধিক দরখাস্তকারীর মৃত ব্যক্তির ভূ-সম্পত্তিতে স্বার্থসংশ্লিষ্ট বলিয়া বিচারকের নিকট প্রতীয়মান হয়, তাহা হইলে কাহাকে সার্টিফিকেট মঞ্জুর করিতে হইবে এতদবিষয়ে সিদ্ধান্ত দানে তিনি দরখাস্তকারীগণের স্বার্থের পরিধি এবং অন্যান্য যোগ্যতা বিবেচনা করিবেন৷

 

Case Law

Section 373 Buddists : Buddhists are not governed by the Hindu Laws of succession, but by the principles of equity and good conscience [Ajitandra Bikshu Vs. Agra Bangsa Mahathero, 32 DLR 187].

Opening of the succession is the material question in s.4 of the Muslim Family Laws Ordinance, [1961 Sk. Ibrahim Vs. Nazma Begum, 44 DLR (AD) 276].

সার্টিফিকেটের বিষয়বস্তু৷- যখন জেলা জজ সার্টিফিকেট মঞ্জুর করেন তখন সার্টিফিকেটের দরখাস্তে উল্লেখিত দেনা এবং সিকিউরিটিস সার্টিফিকেটে নির্দিষ্ট করিবেন এবং যে ব্যক্তিকে সার্টিফিকেট মঞ্জুর করা হয় ঐ ব্যক্তিকে-

(ক) উহাদের স্বার্থে এবং লভ্যাংশ গ্রহণ করিবার; বা

(খ) আলোচনা বা হস্তান্তর করিবার; বা

(গ) সিকিউরিটি অথবা উহাদের কোন একটিতে স্বার্থ এবং লভ্যাংশ গ্রহণ বা হন্তান্তর উভয় করিবার ক্ষমতা দিবেন৷

 

ধারা-৩৭৫৷ সার্টিফিকেট গ্রহণকারী হইতে সিকিউরিটি গ্রহণ৷- (১) যেক্ষেত্রে ৩৭৩ ধারার (৩) বা (৪) উপধারার অধীনে জেলা জজ অগ্রসর হওয়ার প্রস্তাব করেন সেইক্ষেত্রে এবং অন্য কোন ক্ষেত্রে তিনি সার্টিফিকেট মঞ্জুরের পূর্বে এইরূপ শর্ত আরোপ করিতে পারিবেন, যে ব্যক্তিকে তিনি মঞ্জুর করিবার প্রস্তাব করেন ঐ ব্যক্তি এক বা ততোধিক জামিনদারসহ বা অন্যান্য পর্যাপ্ত জামানতসহ মুচলেকা তত্কর্তৃক গৃহীত দেনা এবং সিকিউরিটিসের হিসাব দান এবং উক্ত দেনা এবং সিকিউরিটিসের সমুদয় বা কোন অংশে অধিকারী ব্যক্তি অব্যাহতির জন্য বিচারকের নিকট দিবেন৷

(২) পিটিশনের মাধ্যমে দরখাস্ত এবং তাহার নিকট সন্তোষজনক কারণে এবং তিনি যেমন উপযুক্ত মনে করেন তেমন শর্তে সিকিউরিটি সম্পর্কে অথবা গৃহীত অর্থ আদালতে প্রদান করিতে হইবে এইরূপ বিধান করিয়া বা অন্য কোনভাবে অন্য কোন ব্যক্তিকে মুচলেকা বা অন্য কোন জামানত শর্ত নিয়োগ করিতে পারিবেন, এবং ঐ ব্যক্তি উহার ফলে তাহার নিজের নামে এমনভাবে মামলা করিতে পারিবেন যেন আদালতে বিচারকের পরিবর্তে উহা মূলত তাহাকে দেওয়া হইয়াছে এবং ঐ ব্যক্তি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট সকল ব্যক্তির ট্রাষ্ট হিসাবে আদায়যোগ্য অর্থ আদায় করিতে পারিবেন৷

 

ধারা-৩৭৬৷ সার্টিফিকেটের বর্ধন৷- (১) এই ভাগের অধীনে সার্টিফিকেট ধারকের দরখাস্তের ভিত্তিতে জেলা জজ সার্টিফিকেটে মূলতঃ উল্লেখিত নয় এইরূপ দেনা বা সিকিউরিটির ক্ষেত্রে সার্টিফিকেট বর্ধন করিতে পারিবে এবং উক্তরূপ প্রতিটি বর্ধন যে দেনা বা সিকিউরিটির ক্ষেত্রে সার্টিফিকেট বর্ধন করা হয় ঐ দেনা সিকিউরিটি মূলত উহাতে উল্লেখিত ছিল এমনভাবে কার্যকর হইবে৷

সার্টিফিকেটের বর্ধনের ভিত্তিতে উহাতে সুদ বা লভ্যাংশ বা কোন হস্তান্তর গ্রহণকারী ব্যক্তি সম্পর্কে ক্ষমতা অর্পণ করা যাইবে এবং ৩৭৫ ধারায় উল্লেখিত উদ্দেশ্যে মুচলেকা বা অন্য কোন জামানত সার্টিফিকেটের মূল মঞ্জুরের ন্যায় একইভাবে প্রয়োজন হইবে৷

 

ধারা-৩৭৭৷ সার্টিফিকেটের ফরম এবং বর্ধিত সার্টিফিকেট৷- যতদূর সম্ভব ৮নং তফসিলে বর্ণিত ফরমে সার্টিফিকেট মঞ্জুর করিতে হইবে এবং সার্টিফিকেট বর্ধন করিতে হইবে৷

 

ধারা-৩৭৮৷ সিকিউরিটিস সম্পর্কে ক্ষমতার ক্ষেত্রে সার্টিফিকেটের সংশোধন৷-যেক্ষেত্রে সনদে উল্লেখিত জামানত বিষয়ে সনদের ধারকের উপর জেলা জজ কোন ক্ষমতা অর্পণ করেন নাই অথবা জামানতের উপর সুদ বা লভ্যাংশ কিংবা হস্তান্তর গ্রহণ করার ক্ষমতা দিয়াছেন, সেক্ষেত্রে তিনি পিটিশনের মাধ্যমে দরখাস্তের ভিত্তিতে এবং তাহার নিকট সন্তোষজনক কারণে ৩৭৪ ধারায় উল্লেখিত কোন ক্ষমতা অর্পণ করিয়া বা উহাদের পরিবর্তে অন্য কোন ক্ষমতা প্রতিস্থাপন করিয়া সনদ সংশোধন করিতে পারিবেন৷

 

ধারা-৩৭৯৷ সার্টিফিকেটের উপর কোর্ট-ফি সংগ্রহের পদ্ধতি৷- (১) উপধারা (২)-এর বিধানাবলী সাপেক্ষে সার্টিফিকেট বা সার্টিফিকেটের মেয়াদ বৃদ্ধির প্রতিটি দরখাস্তের সাথে Court-fees Act, 1870 (VII of 1870), এই ধারায় অতঃপর Court-fees Act হিসাবে উল্লিখিত, এর অধীনে প্রদেয় ফি এর সমপরিমাণ অর্থ উক্ত সার্টিফিকেট বা সার্টিফিকেটের মেয়াদ বাবদ জমা দিতে হইবে৷

(২) মৃত ব্যক্তির কোন উত্তরাধিকারিনী বা ওয়ারিশ সার্টিফিকেটের জন্য অথবা সার্টিফিকেটের মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য দরখাস্ত করিলে উক্ত সার্টিফিকেট বা সার্টিফিকেটের মেয়াদ বৃদ্ধি বাবদ Court-fees Act এর অধীনে প্রদেয় ফি উপ-ধারা (৩)-এ উল্লেখিত উপায়ে জমা দিতে হইবে৷

(৩) দরখাস্ত মঞ্জুর করা হইলে-

(ক) মৃত ব্যক্তির উত্তরাধিকারী বা ওয়ারিশ ব্যতীত অন্য কোন ব্যক্তি কর্তৃক দাখিলকৃত দরখাস্তের ক্ষেত্রে দরখাস্তকারী কর্তৃক জমাকৃত অর্থ বিচারকের নির্দেশে Court-fees Act-এর অধীনে প্রদেয় ফি চিহ্নিত (denoting) করিবার উদ্দেশ্যে ব্যবহৃতব্য স্ট্যাম্প ক্রয়ে ব্যয় করিতে হইবে; এবং

(খ) মৃত ব্যক্তির উত্তরাধিকারী বা ওয়ারিশ কর্তৃক দাখিলকৃত দরখাস্তের ক্ষেত্রে বিচারক Court-fees Act-এর ২৫ ধারায় যাহা কিছুই থাকুক না কেন, উক্ত সার্টিফিকেট বা সার্টিফিকেটের মেয়াদ বৃদ্ধি বাবদ Court-fees Act-এর অধীনে প্রদেয় ফি এর সম পরিমাণ অর্থ মৃত ব্যক্তির জন্য বা তাহার পক্ষে কোন ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ডাকঘর, অথবা অন্য কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ধারণকৃত অর্থ বা নালিশযোগ্য দাবী হইতে নগদে সরকারী কোষাগারে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিবেন এবং তদনুয়ায়ী উক্ত ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ডাকঘর অথবা অন্য কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান বিচারকের অবগতিতে (intimation) উক্ত পরিমাণ অর্থ জমা দিবেন৷

(৪) উপ-ধারা (১) এর অধীনে গৃহীত কিন্তু উপ-ধারা (৩) (ক)-এর অধীন ব্যয় করা হয় নাই এমন যে কোন পরিমাণ অর্থ জমাদানকারী ব্যক্তিকে ফেরত্ দিতে হইবে৷

ব্যাখ্যাঃ এই ধারার উদ্দেশ্য পূরণকল্পে ''আর্থিক প্রতিষ্ঠান'' অর্থঋণ আদালত আইন, ১৯৯০ (১৯৯০ সনের ৪নং আইন)-এর ২(ক) ধারায় প্রদত্ত সংজ্ঞা মোতাবেক কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠান৷

 

ধারা-৩৮০৷ সনদের স্থানীয় পরিধি৷- এইভাগের অধীনে প্রদত্ত সনদ সমগ্র বাংলাদেশে কার্যকর হইবে৷

 

ধারা-৩৮১৷ সনদের ফলাফল৷- এই ভাগের বিধানাবলী সাপেক্ষে জেলা জজের সনদ উহাতে উল্লেখিত দেনা এবং সিকিউরিটিস বিষয়ে উক্ত দেনা এবং সিকিউরিটিস বিষয়ে উক্ত দেনা এবং সিকিউরিটিসের দায়বদ্ধ ব্যক্তির বিরুদ্ধে চূড়ান্ত প্রমাণ বলিয়া গণ্য হইবে এবং ৩৭০ ধারায় যাহা কিছু বলা থাকুক না কেন অথবা অন্য কোন ত্রুটি সত্ত্বেও উক্ত দেনা বা সিকিউরিটিস বিষয়ে প্রদত্ত সকল পরিশোধ বা লেনদেন বিষয়ে উক্ত সকল ব্যক্তিকে পূর্ণ অব্যাহতি দান করিবে৷

 

ধারা-৩৮২৷ বৈদেশিক রাষ্ট্রে বাংলাদেশী প্রতিনিধির দ্বারা প্রদত্ত বর্ধিত সনদের ফলাফল৷- যেক্ষেত্রে বিদেশী রাষ্ট্রে প্রেরিত বাংলাদেশের প্রতিনিধির দ্বারা ৮নঙ তফসিলে ফরমে সনদ মঞ্জুর করা হয় অথবা ঐ প্রতিনিধির দ্বারা প্রদত্ত সনদ যেক্ষেত্রে বর্ধন করা হয়, সেক্ষেত্রে সনদটি এই ভাগের অধীন সনদ সম্পর্কে ১৮৭০ সালের কোর্ট ফিস এ্যাক্ট এর বিধানাবলী মোতাবেক স্ট্যাম্পকৃত হইলে এই ভাগের অধীনে প্রদত্ত বা বর্ধিত সনদের ন্যায়, বাংলাদেশে কার্যকর হইবে৷

 

ধারা-৩৮৩৷ সাটিফিকেট বাতিল কর৷- এই ভাগের অধীনে প্রদত্ত সনদ নিম্নলিখিত যে কোন একটি কারণে প্রত্যাহার করা যাইবে, যথা-

(ক) সনদ প্রক্রিয়া ত্রুটিপূর্ণ;

(খ) মিথ্যা প্রস্তাব পেশ করিয়া কিংবা বিষয়টিতে গুরুত্বপূর্ণ কিছু আদালতের নিকট লুকাইয়া প্রতারণার মাধ্যমে সনদলাভ করা হইয়াছিল;

(ঘ) অবস্থার কারণে সনদ অপ্রয়োজনীয় এবং কার্যকরহীন হইয়া গিয়াছে;

(ঙ) সনদে বর্ণিত দেনা বা সিকিউরিটি বিষয়ে কোন মামলা বা কার্যধারায় উপযুক্ত আদালতের দ্বারা প্রদত্ত ডিক্রি বা আদেশের মাধ্যমে সনদটি প্রত্যাহার করা উচিত এমন হইয়াছে৷

Case Law

Section 383- A person seeking revocation of certificate granted by a competent Court must have some interest, immediate or remote, in the property of the testator. [Arbinda Sarker Vs. Bimalendu Bhowmik and others, 48 DLR (AD) 182].

 

ধারা-৩৮৪৷ আপীল৷ - (১) এই ভাগের বিধানাবলী সাপেক্ষে এই ভাগের অধীনে প্রদান, প্রত্যাখান বা প্রত্যাহার বিষয়ে জেলা জজের আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্ট বিভাগে আপীল করা যাইবে এবং হাইকোর্ট বিভাগ উপযুক্ত মনে করিলে কোন ব্যক্তিকে সনদ প্রদান করিতে হইবে এবং উহার জন্য দরখাস্তের ভিত্তিতে বিচারককে সনদ প্রদান করিবার নির্দেশ দিয়া তদনুসারে প্রদত্ত সনদ প্রত্যাহার করিয়া সনদ দিতে পারিবে৷

(২) উপধারা (১)-এর অধীনে আপীল ১৯০৮ সনের দেওয়ানী কার্যবিধিতে আপীলের ক্ষেত্রে অনুমোদিত সময়ের মধ্যে করিতে হইবে৷

(৩) উপধারা (১) এর বিধানাবলী সাপেক্ষে এবং হাইকোর্ট বিভাগের নিকট এবং দ্বারা রেফারেন্স এবং রিভিশন এবং ১৯০৮ সালের দেওয়ানী কার্যবিধির রায়ের রিভিউ সম্পর্কে যাহা উক্ত বিধির ১৪১ ধারা প্রয়োগকৃত, জেলা জজের আদেশ চূড়ান্ত হইবে৷

 

ধারা-৩৮৫৷ পূর্ববর্তী প্রবেট বা ব্যবস্থাপনা পত্রের ফলাফল৷- এই আইনে যাহা বলা হইয়াছে তাহা ব্যতীত মৃত ব্যক্তির কোন বিষয় প্রদত্ত সনদ বেআইনী হইবে৷ যদি মৃত ব্যক্তির ভূ-সম্পত্তি সম্পর্কে পূর্বে উক্তরূপ কোন সনদ প্রবেট বা ব্যবস্থাপনাপত্র মঞ্জুর করা হয় এবং উক্ত মঞ্জুর বলবত্ থাকে৷

 

ধারা-৩৮৬৷ অবৈধ সনদের ধারককে সনদ বিশ্বাস কতিপয় পরিশোধের বৈধতা৷- যেক্ষেত্রে এই ভাগের অধীনে প্রদত্ত সনদ ৩৮৩ ধারার অধীনে প্রত্যাহারের কারণে কিংবা ৩৮৪ ধারার অধীনে আপীলযোগ্য আদেশে উল্লেখিত ব্যক্তিকে প্রদানের কারণে কিংবা পূর্বে মঞ্জুরের কারণে কিংবা অন্য কোন কারণে বাতিল করা হয় বা অবৈধ হয় সেক্ষেত্রে বাতিলকৃ